বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
আন্তর্জাতিকডেস্ক

সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান হলিউড অভিনেত্রী লিন্ডসে লোহানের সঙ্গে প্রেম করছেন! জানা গেছে, ৩৩ বছর বয়সী নায়িকা লিন্ডসে লোহান ও ৩৪ বছর বয়সী সৌদি যুবরাজ সালমানের মন দেওয়া-নেওয়ার বিষয়টি নাকি অনেক দূর এগিয়েছে। সময় পেলেই তাঁরা ব্যক্তিগত বিমানে গোপন অভিসারেও যাচ্ছেন, এমন খবরও শোনা যাচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নাকি বেশ ভালো ভাবে তাঁদের যোগাযোগ চলছে। খবর: পেজ সিক্স, ডেইলি টেলিগ্রাফ, ডেইলি মেইল।

গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, বলিউড অভিনেত্রী লোহানকে প্রায়ই দামি উপহার পাঠাচ্ছেন সৌদি যুবরাজ। একইসঙ্গে প্রেমিকার সাধ-আহ্লাদ পূরণ করতে একটি ক্রেডিট কার্ডও উপহার দিয়েছেন তিনি। মার্কিন সুন্দরীর সঙ্গে যুবরাজ মোহাম্মদের এই প্রেমের রসায়ন নিয়ে সৌদি আরব সহ আরব বিশ্ব ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জোর গুঞ্জন চলছে। দু’জনের সম্পর্ক নিয়ে হঠাৎ আগ্রহী হয়ে উঠেছে লোহানের ভক্তরাও।

শোনা যায়, যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবের একাধিক সংবাদমাধ্যম এ নিয়ে মুখরোচক খবর প্রকাশ করেছে। জানিয়েছে, ক্রমেই একে অপরের খুবই ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠছে। এর আগে নাকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্পেরও (৩৭) প্রেমে পড়েছিলেন যুবরাজ।

২০১৭ সালে সৌদির ক্রাউন প্রিন্স হিসেবে দায়িত্ব নেয়া মোহাম্মদ বিন সালমান গত বছর ২০১৮ সালে সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বিশ্বব্যাপী নেতিবাচক আলোচনার মধ্যে পড়েন। জানা গেছে, সৌদি যুবরাজ সালমানের স্ত্রী-সংসার রয়েছে। চারটি সন্তানও রয়েছে তাঁর।

যুক্তরাষ্ট্রের বিনোদন প্রধান সংবাদমাধ্যম পেজ সিক্স জানায়, বছর খানেক আগে সৌদি যুবরাজ সালমান ও হলিউড অভিনেত্রী লোহানের প্রথম দেখা হয় ফর্মুলা ওয়ান গ্র্যান্ড পিক্স রেসের মাঠে। সেখানে পরিচয় থেকে ধীরে ধীরে প্রেমে সম্পর্কে জড়ান লোহান ও সালমান। লোহানের ঘনিষ্ঠ মহল বিষয়টি এক প্রকার স্বীকারও করেছেন। তারা সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের লোহানের সাক্ষাতের বিষয়টিও নিশ্চিত করেছেন।

পেজ সিক্স জানায়, তবে লোহানকে যুবরাজের ক্রেডিট কার্ড দেয়ার বিষয়টি সূত্র অস্বীকার করেছে। কিন্তু অন্য একটি সূত্র বলছে, সালমানের সঙ্গে লোহানের সম্পর্ক অপ্রত্যাশিত বিষয় নয়। কারণ এর আগেও এ নায়িকাকে মধ্যপ্রাচ্যের অনেকের সঙ্গে দেখা গেছে। গত কয়েক বছর ধরে দুবাইয়ে যাতায়াত করেন লোহান।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন বলেও খবর ছড়িয়ে পড়ে। ২০১৭ সালে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি মিরর দাবি করেছিল যে হলিউড নায়িকা লিন্ডসে লোহান নাকি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। তখন কোরআন শরীফ হাতে লিন্ডসে লোহানের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি করে। পরে হলিউড অভিনেত্রী সেটাকে বন্ধুদের দেয়া গিফট বলে জানান।

পরবর্তীতে লোহান তার অফিসিয়াল টুইটার ও ইন্সটাগ্রামে নিজের ছবির পরিবর্তে বায়োগ্রাফিতে ইংরেজিতে লিখেছেন ‘আলাইকুম সালাম বা Alaikum salam’। আর এই লেখার রেশ ধরে নতুন করে আলোচনার ঝড় ওঠে।

গত বছরই লিন্ডসে ঘোষণা দেন, সৌদি নারীদের নিয়ে ‘ফ্রেইম’ নামে একটা চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে চান তিনি। ছবিটিতে সৌদি নারীদের সাংস্কৃতিক ভাবনা ও কর্মকাণ্ড তুলে ধরবেন লোহান। তিনি বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছেন। সেখানকার টিভি শো ‘দ্য মাস্কড সিঙ্গার’-এর সঙ্গে যুক্ত আছেন তিনি। কয়েক সপ্তাহ আগে সহশিল্পীদের সঙ্গে ঝগড়া নিয়ে লোহান আলোচনায় আসেন।

লোহান মাত্র ১০ বছর বয়সে মার্কিন এক টিভি সিরিজে অভিনেত্রী হিসেবে হাজির হন লোহান। তিনি ২০০৫ সালে ‘হার্বি: ফুললি লোডেড’ ও ২০০৬ সালে ‘জাস্ট মাই লাক’ চলচ্চিত্রে শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন। লিন্ডসে লোহান শুধু অভিনেত্রীই নন, তিনি একজন গায়িকা, ব্যবসায়ী এবং ফ্যাশন ডিজাইনারও।

Print Friendly, PDF & Email