বাঙালিনিউজ
জাতীয়ডেস্ক

এশিয়ার বৃহত্তম অর্থোপেডিক হাসপাতাল হবে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্র নিটোর (সাবেক পঙ্গু হাসপাতাল)। এ হাসপাতালে শয্যা সংখ্যার তুলনায় রোগীর চাপ কয়েকগুণ বেশি হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে অর্থোপেডিক হাসপাতালের নতুন ১৪ তলা ভবন তৈরি করা হচ্ছে। নির্মাণ কাজ এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে। এশিয়ার বৃহত্তম এহাসপাতালটি আগামী সেপ্টেম্বর মাসে চালু করা হবে।এসব তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের (নিটোর) বা সাবেক পঙ্গু হাসপাতালের বর্ধিত ভবনের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, হাসপাতালের কাজ প্রায় শেষের দিকে। আশা করছি এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে মধ্যে অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর জন্মের মাসেই আমরা এই সম্প্রসারিত ভবনের উদ্বোধন কাজ সম্পন্ন বা এখানকার স্বাস্থ্যসেবা চালু করতে পারব।

তিনি বলেন, এই হাসপাতাল আগে থেকেই ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট ছিলো। এখন তা বর্ধিত হয়ে ১ হাজার শয্যায় উন্নিত করা হচ্ছে। এখানে সংযুক্ত উন্নত প্রযুক্তির যন্ত্রপাতির মাধ্যমে আরও উন্নতমানের চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হবে।

এছাড়াও এই হাসপাতালে ব্যবহৃত পানি পুনরায় ব্যবহারে (রিসাইক্লিং) ব্যবস্থা থাকছে। যে পানি খাওয়া ছাড়া অন্যান্য কাজে ব্যবহার করা যাবে। এর আগে মন্ত্রী বর্ধিত ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটির নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন এবং সংশ্লিষ্টদের দ্রুত উদ্বোধনের জন্য প্রস্তুত করার নির্দেশ দেন।

বিএনপির আন্দোলনে নামার ঘোষণার সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নাসিম বলেন, আন্দোলনের খেলা না খেলে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হন। এটা আপনাদের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে। নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছাড়া একটি রাজনৈতিক দল বাঁচতে পারে না। বিএনপি বিগত নির্বাচনে না এসে অনেক দুর্বল হয়ে পড়েছে। আর খালেদা জিয়ার জন্য দেশের সর্বোচ্চ উন্নতমানের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু তিনি তা গ্রহণ করেন নি। এক্ষেত্রে আমাদের করার কিছু নেই।

Print Friendly, PDF & Email