বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রতিদিন ১০ হাজার স্টেপ হাঁটতে হবে। তাহলে সুস্থ থাকা যাবে। ১০ হাজার স্টেপ হাঁটতে হবে, মানে ৬ দশমিক ৫ কিলোমিটার হাঁটতে হবে প্রতিদিন। এই হিসাবটা সারাদিনের সব হাঁটাহাঁটি মিলে। জার্মানির চিকিৎসা বিজ্ঞানিরা তাদের গবেষণা থেকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

১০ হাজার স্টেপ হাঁটতে সময় লাগবে ১৫০ মিনিট বা আড়াই ঘন্টা। জাপানে ‘মেনপো-কেই’ বা ‘১০ হাজার স্টেপ মিটার’ নামের একটি ডিভাইস দেওয়া হয় নাগরিকদের, তাদের ফিটনেস ধরে রাখার জন্য। ১৯৬৪ সালে জাপানের নাগরিকদেরকে ১০ হাজার স্টেপ হেঁটে টোকিও অলিম্পিককে সমর্থন জানানোর কথা বলা হয়েছিল এবং ফিটনেসকে জীবনযাপনের পদ্ধতি হিসেবে চালু করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।

এর কিছুদিন পরই যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল ওবেসিটি ফোরাম ঘোষণা করে, যারা প্রতিদিন ৭ হাজার থেকে ১০ হাজার স্টেপ হাঁটেন, তাদেরকে শারীরিকভাবে ‘পুরোপুরি সক্রিয়’ বলে আখ্যায়িত করা যায়। গ্লোবাল রিসার্চ ফার্ম আইডিসির অনুমান, ২০১৯ সালের মধ্যে ১০ কোটি স্টেপ ট্র্যাকার বিক্রি হবে।

স্বাস্থ্যসম্পর্কিত বেস্ট সেলার বুক সেলফ-হেলফ বই ‘ম্যানেপো-কেই: দ্য আর্ট অ্যান্ড সায়েন্স অফ স্টেপ কাউন্টিং’ এ প্রতিদিন ১০ হাজার স্টেপ হাঁটার পক্ষে যুক্তি দেওয়া হয়েছে। বইটির লেখক ক্যাটেরিন টিউডর লক বলেন, ”একজন স্বাস্থ্যবান প্রাপ্তবয়স্ক লোকের জন্য প্রতিদিন ১০ হাজার স্টেপ হাঁটার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে দেওয়াটা অযৌক্তিক নয়। আর প্রতিদিন ১০ হাজার স্টেপ হাঁটার উপকারিতা খুঁজে বের করার জন্য গবেষণাও পরিচালিত হচ্ছে।”

তবে কিশোর বয়সীদের জন্য ১ হাজার কদম অনেক কম আর ৬৫ বছরের বেশি বয়সী লোকদের জন্য তা অনেক বেশি হয়ে যাবে।

আর যেসব প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ প্রতিদিন ৫ হাজার স্টেপের কম হাঁটেন, তারা অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করছেন। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হলো, প্রতিদিন ৩ হাজার স্টেপ হাঁটা দিয়ে শুরু করতে পারেন। আর প্রতি সপ্তাহে ৫০০ স্টেপ করে বাড়িয়ে আস্তে আস্তে ১০ হাজার স্টেপের মাইলফলক অতিক্রম করতে হবে।

গবেষকরা বলছেন, হাঁটাহাঁটির মাধ্যমে সক্রিয় জীবনযাপনের ফলে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোক থেকে বাঁচা সম্ভব। তবে অনেক বিশেষজ্ঞের মতে, ১০ হাজার স্টেপ হাঁটতে হবে তেমন কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। সপ্তাহে অন্তত ৪ দিন ৩০ মিনিট করে মাঝারি মাত্রার শরীরচর্চার মাধ্যমেও সুস্থ থাকা সম্ভব। হাঁটাহাঁটির পাশাপাশি সাঁতার কাটা এবং সাইকেল চালানোর মতো ব্যায়ামও করতে হবে।

বর্তমানে হাঁটাহাঁটির স্টেপ সংখ্যার হিসেবে বিশ্বব্যাপী সক্রিয় জীবনযাপনের যে মানদণ্ড রয়েছে, তা হলো:

  • প্রতিদিন ৫ হাজার স্টেপের কম হাঁটলে তা অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন।
  • ৫ হাজার থেকে ৭ হাজার ৪৯৯ স্টেপ হাঁটলে নিম্ন সক্রিয় জীবনযাপন।
  • ৭ হাজার ৫০০ স্টেপ থেকে ৯ হাজার ৯৯৯ স্টেপ হাঁটলে তা মোটামুটি সক্রিয় জীবনযাপন।
  • ১০ হাজার স্টেপ হাঁটলে পুরোপুরি সক্রিয় জীবনযাপন।
  • আর ১২ হাজার ৫০০ স্টেপের বেশি হাঁটলে উচ্চমাত্রায় সক্রিয় জীবনযাপন।

তবে এই হাঁটাহাঁটির হিসাব শুধু ব্যায়াম করার সময় নয়। আপনার সারাদিনের হাঁটার হিসাব এতে অন্তর্ভুক্ত। সুতরাং আজই হাতের কবজিতে একটি স্টেপ ট্র্যাকার লাগিয়ে নিন, আর হিসাব রাখতে শুরু করুন প্রতিদিন কত স্টেপ হাঁটা হচ্ছে।

এর পাশাপাশি প্রতিদিন অন্তত ৭ ঘণ্টা ঘুমাতে হবে এবং শুধু হৃদপিণ্ড নয় বরং স্বাস্থ্যবান দেহ, হজম প্রক্রিয়া এবং পরিপাকতন্ত্র সম্পর্কেও সচেতন থাকুন। সূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া

Print Friendly, PDF & Email