রাসেল সিআরপিতে গেছেন, কৃত্রিম পা নিতে

বাঙালিনিউজ
প্রতিবেদন ডেস্ক

গ্রিনলাইন পরিবহনের বাসচাপায় পা হারায় প্রাইভেটকারচালক রাসেল সরকার। যানা গেছে, কৃত্রিম পা নিতে তিনি সাভারের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে (সিআরপি) গেছেন। আজ ১১ এপ্রিল ২০১৯ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি সিআরপিতে যান।

সিআরপিতে প্রথমে তাকে সুইজারল্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল টেকনোলজির একটি পা দেয়া হবে। পরে তাকে জার্মান প্রযুক্তির উন্নত একটি পা দেয়া হবে।

এ বিষয়ে সিআরপির কৃত্রিম অঙ্গ সংযোজন বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ শফিক বলেন, রাসেলকে সিআরপির পক্ষ থেকে আপাতত সুইজারল্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল টেকনোলজির এবং পরে জার্মান প্রযুক্তির উন্নত একটি পা দেয়া হবে। তবে এগুলো তাকে বিনামূল্যে দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

এসময় তিনি আরও বলেন, আজ তার পায়ের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা হবে এবং ১৩ এপ্রিল শনিবার থেকে তার পায়ের চিকিৎসা শুরু হবে। পরে রাসেলের নতুন পা সংযোজনের জন্য প্রায় চার সপ্তাহ সময় লেগে যাবে। এই সময়ের মধ্যে নতুন পা দিয়ে তার চলাফেরাসহ দৈনন্দিন কাজের বিষয়গুলোতেও অনুশীলন করানো হবে বলে তিনি জানান।

বাসচাপায় পা হারানো রাসেল সরকার একটি প্রতিষ্ঠানের ভাড়া গাড়ি চালাতেন। গত বছরের ২৮ এপ্রিল কেরানীগঞ্জ থেকে ঢাকায় ফেরার পথে যাত্রাবাড়ীর হানিফ উড়ালসড়কে গ্রিনলাইন পরিবহনের বাসের চাপায় পা হারান। ঘটনার পর রাসেল বলেছিলেন- ফেরার সময় যাত্রাবাড়ীতে গ্রিনলাইন পরিবহনের একটি বাস তার গাড়িকে ধাক্কা দেয়। পরে গাড়ি থামিয়ে বাসের সামনে গিয়ে বাসচালককে নামতে বলেন তিনি।

এ সময় বাসচালকের সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে বাসচালক গাড়ি চালাতে শুরু করেন। তখন রাসেল সরতে গেলে উড়ালসড়কের রেলিংয়ে আটকে যান। এ সময় রাসেলের পায়ের ওপর দিয়ে বাস চলে যায়। এর পর অস্ত্রোপচার করে তার বাঁ পা কেটে ফেলা হয়। এ ঘটনায় রাসেল সরকারের বড় ভাই আরিফ সরকার বাসচালক কবির মিয়ার বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী থানায় একটি মামলা করেন।

জানা যায়, ওই মামলায় গ্রিনলাইনকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে রায় দেন হাইকোর্ট। বুধবার পাঁচ লাখ পরিশোধ করে গ্রিনলাইন।

এ বিষয়ে সিআরপির নির্বাহী পরিচালক শফিকুল ইসলাম জানান, পরিবহন খাতের এমন অব্যবস্থাপনার কারণে যে দুর্ঘটনা ঘটেছে, সেটি খুবই দুঃখজনক। তার এ দুর্ঘটনার কারণে যেমন সবাই এগিয়ে এসেছেন, আমরাও আমাদের পক্ষ থেকে তার জন্য কিছু করার চেষ্টা করছি। রাসেলকে আমাদের এখানে যে ধরনের সুবিধা দেয়া সম্ভব, আমরা তাকে সব ধরনের সুবিধা দেব।

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার বাসিন্দা রাসেল সরকার রাজধানীর আদাবর এলাকায় স্থানীয় একটি ‘রেন্ট-এ-কার’ প্রতিষ্ঠানের প্রাইভেটকার চালাতেন। ২০১৮ সালের ২৮ এপ্রিল মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে কথা কাটাকাটির জেরে গ্রিনলাইন পরিবহনের বাসের চালক ক্ষিপ্ত হয়ে রাসেলকে চাপা দেয়। এতে তার বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

Print Friendly, PDF & Email