বাঙালিনিউজ
রক্তে প্লাটিলেট কমে গেলে রোগীকে এই খাবারগুলো খাওয়ালে প্লাটিলেট বাড়তে পারে।

বাঙালিনিউজ
স্বাস্থ্যডেস্ক

রেড ব্লাড সেল বা লোহিত রক্ত কনিকা, হোয়াইট ব্লাড সেল স্বেত রক্ত কনিকা ও প্লাটিলেট বা অনুচক্রিকা হচ্ছে রক্তের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। শরীরে এর যে কোনো একটি উপাদান কমে গেলে মারাত্মক ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে। যে কোনো গুরুত্বপূর্ণ রোগের কারণেও রক্তের এসব উপাদান কমে যেতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডেঙ্গু জ্বর হলে সারা শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা হতে পারে। এ সময় প্রায় ৯০ শতাংশ রোগীর প্লাটিলেট কমে যায়। রক্তে প্লাটিলেট বা অণুচক্রিকার স্বাভাবিক মাত্রা দেড় লাখ থেকে সাড়ে চার লাখ। তাই কোনো ডেঙ্গু রোগীর আশঙ্কাজনকভাবে এই অন্যতম রক্ত কনিকা কমে যাচ্ছে কিনা, সেদিকে খেয়াল রাখাটা জরুরি।

এখন সারা দেশে ডেঙ্গু হেমোরেজিক ফিভার দেখা দিয়েছে। যেহেতু এ রোগে আক্রান্ত বেশির ভাগ রোগীরই রক্তে প্লাটিলেটের সংখ্যা কমে যায়। তাছাড়া নানা ধরনের ভাইরাস জ্বরেও প্লাটিলেট কমতে পারে। তবে প্রথম থেকে ঠিকমতো চিকিৎসা করালে এবং সঠিক পরিমাপে তরল পদার্থ দিতে পারলে ডেঙ্গু মারাত্মক আকার ধারণ করে না।

তাই কোনো রোগীর রক্তে প্লাটিলেট কমে গেলে তা বাড়াতে পারে—এমন কয়েকটি খাবার সম্পর্কে জেনে নিন:

পেঁপে: প্লাটিলেট বাড়াতে পেঁপের জুস খেতে পারেন। পেঁপেপাতা অণুচক্রিকা বাড়াতে সাহায্য করে বলে ডেঙ্গুতে উপকারী। পেঁপেপাতা বেটে রস করে পান করতে পারেন। এছাড়া পেঁপে পাতা সেদ্ধ করেও খাওয়া যায়।

ব্রোকলি: ভিটামিন ‘কে’– এর দারুণ উৎস ব্রোকলি, যা রক্তে প্লাটিলেট বাড়াতে সাহায্য করে। যদি দ্রুত প্লাটিলেট কমতে থাকে, তবে প্রতিদিনের খাবারে অবশ্যই ব্রোকলি যুক্ত করবেন। এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও নানা উপকারী খনিজ রয়েছে।

বেদানা: বেদানায় দরকারি নানা পুষ্টি ও খনিজ উপাদান রয়েছে, যা শরীরের প্রয়োজনীয় শক্তি জোগাতে পারে। শরীরের ধকল কাটাতে বেদানা দারুণ উপকারী। এ ছাড়া এটি আয়রনের উৎস বলে রক্তের জন্য উপকারী। প্লাটিলেটের সংখ্যা স্বাভাবিক রাখতে এবং ডেঙ্গু সারাতে এটি উপকারী।

পালং শাক: আয়রন ও ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিডের অন্যতম উৎস পালং শাক। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া শরীরে প্লাটিলেটের সংখ্যা বাড়াতে পারে।

ডাব: ডাবের পানিতে খনিজ বা ইলেট্রোলাইটস আছে, যা ডেঙ্গু জ্বরে খুবই দরকারি। তথ্যসূত্র: এনডিটিভি।

Print Friendly, PDF & Email