বাঙালিনিউজ
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ‘ভুল চিকিৎসায়’ মো. মহিউদ্দিন (৪৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন স্বজনরা। গতকাল ১৬ জুন ২০১৯ রোববার রাতে সদর উপজেলার ঘাটুরাস্থ বেসরকারি ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় নিহত মহিউদ্দিন উপজেলার তেলিনগর গ্রামের কুফুল উদ্দিনের ছেলে।

এ ব্যাপারে নিহতের স্বজনরা জানান, গত ১০ জুন সোমবার পিত্তথলিতে পাথরজনিত সমস্যা নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন মহিউদ্দিন। তিন দিন চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে যাওয়ার পর পুনরায় ব্যাথা অনুভব হলে গত ১৫ জুন শনিবার আবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরদিন ১৬ জুন রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সেখানে তাকে ফের অস্ত্রপচার করা হয়। এরপর রাত সাড়ে ১০টায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ স্বজনদের জানায় মহিউদ্দিন মারা গেছেন।

এ ঘটনার পর নিহতের বড় ভাই জামাল উদ্দিন জানান, অস্ত্রপচারের পর তার ভাইকে তিনটি ইনজেকশন পুশ করা হয়। এতে ব্যাথা শুরু হয় এবং কিছুক্ষণ পর সে মারা যায়।

তিনি অভিযোগ করেন ভুল চিকিৎসায় মহিউদ্দিনের মৃত্যু হয়েছে। আমরা এর সুষ্ঠ বিচার চাই।

তবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডা. মো. আবু সাঈদ ‘ভুল চিকিৎসার’ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অস্ত্রপচারের পর রোগীকে তার বেডে নিয়ে যাওয়া হয়। হঠাৎ করে তিনি ব্রেনস্ট্রোক করে মারা যান। আমরা তাকে বাঁচানোর জন্য সব ধরনের চেষ্টা করেছি।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান জানান, রোগীর স্বজনদের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। তারা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।

Print Friendly, PDF & Email