বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
খেলারডেস্ক

ব্যালন ডি’অর পুরস্কারের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করেছে ‘ফ্রান্স ফুটবল’ সাময়িকী। বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম আকর্ষণীয় এই পুরস্কারের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বীর এই তালিকায় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, লিওনেল মেসি, লুকা মদ্রিচ, নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পে, আঁতোয়ান গ্রিজমান ও মোহাম্মদ সালাহ সহ আছে ৩০ জন ফুটবল তারকার নাম। ক্লাব হিসাবে বর্ষসেরার পুরস্কারের জন্য মনোনীত খেলোয়াড়দের এই সংক্ষিপ্ত তালিকায় রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড়ের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

টানা তিনবারের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নদের শিবির থেকে এই তালিকায় জায়গা পেয়েছেন, লুকা মদরিচ, গ্যারেথ বেল, সার্জিও রামোস, করিম বেনজেমা, থিবো কোর্তোয়া, ইসকো, মার্সেলো ও রাফায়েল ভারানে। রিয়ালের ৮ জন খেলোয়াড় এই তালিকায় আছেন।

আর কোনও ক্লাবের এতো খেলোয়াড় এই তালিকায় নেই। রাশিয়া বিশ্বকাপে রিয়ালের খেলোয়াড়দের উজ্জ্বল পারফরম্যান্স আর চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ই রিয়ালের আধিপত্যের কারণ। রিয়ালের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা থেকে জায়গা পেয়েছেন মাত্র ৩ জন খেলোয়াড়। তারা হলেন, লিওনেল মেসি, ইভান রাকিতিচ ও লুই সুয়ারেজ। গত মৌসুমে স্প্যানিশ লা লিগা ও কোপা ডেল রে জিতলেও ইউরোপের মাঠে ভালো খেলেনি বার্সেলোনা।

তালিকায় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের আছেন ৩ জন খেলোয়াড়। তাঁরা হলেন-আঁতোয়ান গ্রিজমান, ডিয়োগো গডিন ও জাঁ ওবলাক। এদের মধ্যে গ্রিজমান অন্যতম। গত মৌসুমে স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে ইউরোপা লিগ ও উয়েফা সুপার কাপ জিতেছেন এই ফরাসি ফরোয়ার্ড। আর জিতেছেন এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপে ৪ গোল করে তৃতীয় সেরা খেলোয়াড়ের (ব্রোঞ্জ বল) পুরস্কারও জিতেছেন গ্রিজমান।

৩০ জনের এই সংক্ষিপ্ত তালিকায় লা লিগা থেকে জায়গা পেয়েছেন ১৪ জন খেলোয়াড়। সংক্ষিপ্ত তালিকার প্রায় অর্ধেক। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ থেকে জায়গা পেয়েছেন ১১ খেলোয়াড়। এর মধ্যে লিভারপুলের ৪ জন—মোহাম্মদ সালাহ, আলিসন, সাদিও মানে ও রবার্তো ফিরমিনো। ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান থেকে যে ৩ জন খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন সবাই পিএসজির—নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পে ও এডিনসন কাভানি। সিরি ‘আ’ থেকে জায়গা পাওয়া দুই খেলোয়াড় হলেন জুভেন্টাসের—ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও মারিও মানজুকিচ। বুন্দেসলিগা থেকে এবার কোনো খেলোয়াড় জায়গা পাননি এই সংক্ষিপ্ত তালিকায়।

অবশ্য গতকাল ০৮ অক্টোবর ২০১৮ সোমবার ফ্রান্স ব্যালন ডি’অরের ৩০ জনের তালিকায় প্রথম যে ১৫ জনের নাম ছিল তাতে পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লিওনেল মেসি, ব্রাজিলের নেইমার, ফিফা ব্যালন ডি’অর জয়ী লুকা মদ্রিচ ও মিশরীয় তারকা মোহাম্মদ সালাহর নাম ছিল না। তবে ওই ১৫ জনের তালিকায় পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর নাম ছিল। এরপর বাকি ১৫ জন সহ মোট ৩০ জনের তালিকায় মেসি, নেইমার, মদ্রিচ ও সালাহর নাম ঘোষণা করা হয়।

সোমবার রাতে ঘোষিত ৩০ জনের এই তালিকা থেকে তিনজনকে বাছাই করা হবে। আর আগামী ৩ ডিসেম্বর প্যারিসে জমকালো অনুষ্ঠানে বর্ষসেরার এই পুরস্কার বিজয়ী খেলোয়াড়ের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

গত ১০ বছর ধরে এ সময়ের ফুটবল সুপারস্টার লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ফ্রেঞ্চ ম্যাগাজিন ভিত্তিক বর্ষসেরা ফুটবলারের এই পুরস্কার দখলে রেখেছেন। সর্বশেষ গত ২০১৭ সালে এই পুরস্কার লাভ করেন রোনালদো। উল্লেখ্য, রোনালদো বর্তমানে ২০০৯ সালের এক যৌন কেলেঙ্কারীর ঘটনায় অভিযুক্ত হয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন।

এবার রোনালদো ও মেসির শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে লুকা মদ্রিচকে ভাবা হচ্ছে। কারণ, মিডফিল্ডার এই তারকা গত বছর চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ে রিয়াল মাদ্রিদের অন্যতম কাণ্ডারী। মদ্রিচের নেতৃত্বেই তাঁর স্বদেশ ক্রোয়েশিয়ার জাতীয় ফুটবল দল রাশিয়া বিশ্বকাপে ফাইনাল খেলেছে এবং রানার্স-আপ হয়েছে।

মদ্রিচ গত মাসে রোনালদো ও সালাহকে পিছনে ফেলে ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কার জয় করেছেন। তিনি উয়েফা বিচারেও এবারের সেরা ফুটবলারের পদক জয় করেছেন। তবে ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কারের তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় বিস্ময়করভাবে বাদ পড়েছিল মেসির নাম।

বাঙালিনিউজ

৩০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা

সের্হিও আগুয়েরো, অ্যালিসন বেকার, গ্যারেথ বেল, করিম বেনজমা, এদিনসন কাভানি, থিবাউ কুর্তোয়া, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, কেভিন দে ব্রুইনা, রবার্তো ফিরমিনো, দিয়েগো গডিন, আঁতোয়া গ্রিজম্যান, এদেন হ্যাজার্ড, ইস্কো, হ্যারি কেইন, এন’গোলো কান্তে, হুগো লোরিস, মারিও মান্দজুকিচ, সাদিও মানে, মার্সেলো, কিলিয়ান এমবাপ্পে, লিওনেল মেসি, লুকা মদ্রিচ, নেইমার, জন ওবালাক, পল পগবা, ইভান রাকিটিচ, সের্হিও রামোস, মোহাম্মদ সালাহ, লুইস সুয়ারেজ, রাফায়েল ভারানে।

এবারই প্রথম নারী বিভাগেও ব্যালন ডি’অর

এদিকে, এবারই প্রথম নারীদের বিভাগেও ব্যালন ডি’অর দেয়া হচ্ছে। এজন্য মনোনীত ১৫ জনের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বিজয়ী লিঁওর রয়েছেন সর্বোচ্চ ৭ জন নারী –। তারা হলেন ফ্রান্সের আমানডিনে হেনরি, আমেল মাজরি, ওয়েনডি রেনার্ড, জার্মানীর ডিসেনিফার মারোজসান, ইংল্যান্ডের লুসি ব্রোঞ্জ, নরওয়ের আডা হেগারবার্গ ও জাপানের ডিফেন্ডার সাকি কুমাগাই। কোপা আমেরিকা বিজয়ী ও ফিফা বর্ষসেরা নারী ফুটবলারের পুরস্কার জয় করা রেকর্ড ষষ্ঠবার ব্যালন ডি অ’র বিজয়ী ব্রাজিলিয়ান তারকা মার্তাও এই তালিকায় রয়েছেন।

ইতোপূর্বে ব্যালন ডি’অর জয়ীরা

উল্লেখ্য, ইতোপূর্বে রোনালদো ও মেসি সমান পাঁচবার করে এই পুরস্কার জিতেছেন। মিশেল প্লাতিনি, ইয়হান ক্রুইফ ও মার্কো ফন বাস্তেন সর্বোচ্চ তিনবার করে এই ট্রফি জিতেছেন। এছাড়া ফ্রেঞ্জ বেকেনবাওয়ার, কার্ল-হেইঞ্জ রুমেনিগে, রোনালদো (ব্রাজিল), আলফার্ডো ডি স্টেফানো এবং কেভিন দু’বার করে এই পুরস্কার জয় করেছেন। আর কাকা, রোনালদিনহো, রিভালদো, ফ্যাবিয়ান ক্যানাভারো, মাইকেল ওয়েনরা একবার করে এই পুরস্কার জিতেছেন।

উল্লেখ্য, ফুটবলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার ব্যালন ডি’অর। ১৯৫৬ সাল থেকে তা দিয়ে আসছে ফরাসি ফুটবল পত্রিকা ফ্রান্স ফুটবল। আগে এটি ‘ইউরোপীয় বর্ষসেরা ফুটবলার’ নামে পরিচিত ছিল। বার্ষিক ভিত্তিতে বিগত এক বছরের খেলার মানের ওপর নির্ভর করে এ পুরস্কার দেওয়া হয়। পুরস্কারটি পেতে হলে খেলোয়াড়কে অবশ্যই উয়েফা অনুমোদিত কোনও ক্লাবে খেলতে হবে। এ পুরস্কারের জন্য ভোট দেন ইউরোপের ফুটবল সাংবাদিকরা।