বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক

আজ ২১ এপ্রিল ২০১৯ রোববার সকালে তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলে ভয়াবহ বোমা হামলায় শ্রীলঙ্কায় অন্তত ১৫৬ জন নিহত ও কমপক্ষে ৪০০ জন আহত হয়েছেন। শ্রীলঙ্কা সরকার এই শোকাবহ ও সংকটময় মুহূর্তে সব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বন্ধ করে দিয়েছে। সামাজিক মাধ্যমে ভুল খবর যেন ছড়িয়ে না পড়ে সে কারণেই এই ব্যবস্থা নিয়েছে শ্রীলঙ্কা সরকার।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বন্ধ করা ছাড়াও আজ ২১ এপ্রিল রোববার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে আগামীকাল ২২ এপ্রিল সোমবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত পুরো দেশে কারফিউ ডেকেছে শ্রীলঙ্কার সরকার। শ্রীলঙ্কার প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী রুয়ান বিজেবর্ধনে কলম্বোয় এক সংবাদ সম্মেলনে সংবাদকর্মীদের জানিয়েছেন, ‘পরিস্থিতি শান্ত না হওয়া পর্যন্ত কারফিউ জারি থাকবে।’

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলোর খবরে জানা গেছে, শ্রীলঙ্কার সরকার ইস্টার সানডেতে ভয়াবহ এই সিরিজ বোমা হামলার পর ফেসবুক, টুইটারসহ সব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আজ শ্রীলঙ্কার তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলে একের পর এক বোমা বিস্ফোরণ ঘটনা ঘটে।

আজ খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান উৎসব ইস্টার সানডে। এ উপলক্ষে গির্জাগুলোতে বিশেষ প্রার্থনা চলছিল। ওই প্রার্থনার সময়ই হামলা হয়। পুলিশের বরাত দিয়ে এএফপি বলছে, এই হামলায় অন্তত ১৫৬ জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া পরে আরও দুটি হামলায় নিহত হয়েছেন ২ জন। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ৩৫ জন বিদেশি। আহত হয়েছেন ৪০০ জন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, হামলার পর গির্জাগুলো বিধ্বস্ত। এসব গির্জার ছাদ উড়ে গেছে। রক্তের দাগ গির্জাগুলোর মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। স্থানীয় হাসপাতালগুলো ভরে গেছে আহত মানুষে।

Print Friendly, PDF & Email