বাঙালিনিউজ
দলবদলের মৌসুম শেষ হওয়ার আগেই নেইমারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বাঙালিনিউজ
ক্রীড়াডেস্ক

ফ্রান্সের ফুটবল ক্লাব পিএসজি ব্রাজিলের ফুটবল সুপারস্টার নেইমারকে বিক্রি করতে সম্মত হয়েছে। ইতোমধ্যে ২৫০ মিলিয়ন দাম হাঁকিয়েছে প্যারিসের এই ক্লাবটি। অথচ ২২২ মিলিয়নে বার্সেলোনার কাছ থেকে কিনেছিল তারা নেইমারকে। অনেকেই বলছেন, বার্সেলোনা নেইমারকে ফেরত চাচ্ছে বলেই এতো বেশি দাম হাকিয়েছে পিএসজি। কারণ, বার্সার সঙ্গে পিএসজির সম্পর্ক ভালো না। তাই তারা চাচ্ছে না বার্সার কাছে নেইমার ফেরত যাক।

তবে সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, বার্সার একটি প্রতিনিধি দল পিএসজি’র অফিসে হাজির হয়েছিল। তাদের প্রস্তাব, নেইমারের বিনিময়ে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ইউরো তারা দেবে এবং সঙ্গে তারা ফিলিপ্পে কৌতিনহোকেও দেবে পিএসজিকে। বার্সার এই প্রস্তাব নিয়ে এখনও কোনো ফলাফল জানা যায়নি।

তবে দলবদলের মৌসুম শেষ হওয়ার আগেই নেইমারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ, নেইমারকে পাওয়ার লড়াইয়ে নেমেছে স্পেনের আরেক শীর্ষ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদও। তবে শেষ পর্যন্ত কে নেইমারকে পাবে-বার্সা নাকি রিয়াল? এই প্রশ্নের উত্তরের জন্য আরও কিছু দিন অপেক্ষা করতে হবে ফুটবল ভক্তদের।

নেইমারকে নিয়ে এই টানাটানি অনেকদিন থেকেই। নেইমারের আকাশছোঁয়া দামের কারণেই শুরুতে বার্সা তাকে ফিরিয়ে নিতে রাজি ছিল না। কিন্তু পিএসজি ছাড়তে মরিয়া নেইমার তার ভুল বুঝতে পেরে পুরনো ঠিকানায় ফিরতে চান। তাছাড়া বার্সা অধিনায়ক লিওনেল মেসিও চান বন্ধু নেইমার তাদের কাছে ফিরে আসুক।

অন্যদিকে বার্সার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদও নেইমারকে চায়। সবমিলিয়ে একপ্রকার বাধ্য হয়েই পিএসজির সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে বার্সা। নেইমারও রিয়াল মাদ্রিদের আগ্রহ অগ্রাহ্য করে কাতালান জায়ান্টদের ঘরেই ফিরতে চান।

কিন্তু নেইমারের বর্তমান ক্লাব পিএসজি কিছুদিন আগে বার্সাকে ছেড়ে অন্য ক্লাবের সঙ্গে আলোচনায় গুরুত্ব দিয়েছিল। সেই তালিকায় রিয়াল ছাড়াও আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের নাম। এটা বার্সার জন্য সম্মানের ব্যাপার। তাই হাল ছেড়ে দিয়েছিল কাতালানরা। কিন্তু নেইমারের বন্ধু মেসি ও সুয়ারেজের চাপ সামলানো কঠিন বার্সা প্রেসিডেন্ট হোসে মারিয়া বার্তমেউ’র জন্য। তাই নেইমারের জন্য ফের লড়াইয়ে নেমেছে বার্সা।

এদিকে নেইমারকে বিদায়ের ব্যাপারে পিএসজির সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত। তাই তাকে ছাড়াই মৌসুম শুরু করেছে টমাস টুখেলের শিষ্যরা। কিন্তু নেইমারকে বেচার জন্য যে দাম হাঁকানো হচ্ছে, তা কারো কাছেই মনঃপুত হচ্ছে না। এজন্য শেষমেশ সেই বার্সার সঙ্গেই আলোচনায় বসেছে ক্লাবটির মালিকপক্ষ।

কিছুদিন আগেই অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ থেকে ১২০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে ফরাসি ফরোয়ার্ড গ্রিজম্যানকে কিনেছে বার্সেলোনা। এখন আবার নেইমারের জন্য ২৫০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করা আসলেই কঠিন তাদের জন্য। এর আগে নেইমারের বিনিময়ে স্যামুয়েল উমতিতি, ইভান রাকিতিচ, উসমানে দেম্বেলে এবং ফিলিপ্পে কৌতিনহোর মতো তারকাদের মধ্যে থেকে কয়েকজনকে অফার করেছিল বার্সা। কিন্তু পিএসজি’র তাতে মন গলেনি।

এখন বার্সার হাতে একটাই উপায় আছে। আর তা হলো, ফিলিপ্পে কৌতিনহো। তার সঙ্গে ১২০ (কোনো কোনো সংবাদ মাধ্যম বলছে ৮০ মিলিয়ন) মিলিয়ন ইউরোও অফার করেছে বার্সা। এখন এর বেশি কিছু করা বার্সার জন্য প্রায় অসম্ভব। তাছাড়া কৌতিনহোকে যদি পিএসজি নিতে রাজিও হয়, তবু দেম্বেলে, সুয়ারেজ কিংবা গ্রিজম্যানের মধ্যে যেকোনো একজনকে বেঞ্চে বসেই কাটাতে হবে। মেসির জায়গা তো কেউ নিতে পারবে না। তার মানে দেম্বেলেকে বেচতেই হবে। কিন্তু কেউ কিনতে রাজিই তো হচ্ছে না। অথচ দুই বছর আগে ছেড়ে যাওয়া নেইমারকে ফেরানো দরকার। ফলে গ্যাঁড়াকলে পড়েছে বার্সেলোনা।

গ্রীষ্মের দলবদলের শেষ সময় যত ঘনিয়ে আসছে, নেইমার নাটক ততই জমে উঠছে। শোনা যাচ্ছে, নেইমারকে পেতে রিয়াল মরিয়া হয়ে চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে নেইমার নিজে না চাইলে অবশ্য ভিন্ন কথা। কিন্তু পিএসজির নেইমারকে বার্সায় নয়, রিয়ালের কাছেই বেচার আগ্রহ বেশি। কারণ, পিএসজি আর বার্সার খারাপ সম্পর্ক। তাছাড়া বার্সাও পিএসজিকে নেইমারের জন্য বিশাল অঙ্কের অর্থ দিতে রাজি নয়।

তবে বার্সার জন্য সুবিধা হলো, রিয়াল এখনও তাদের কয়েকজন খেলোয়াড়কে বেচতে পারেনি। গ্যারেথ বেল, হামেস রদ্রিগেজ ও মারিয়ানো দিয়াজকে বেচে নেইমারকে কেনার অর্থ ক্যাশ করতে চায় মাদ্রিদের ক্লাবটি। কিন্তু এখন পর্যন্ত এই তিনজনের কাউকে বেচার জন্য ভালো অফার পায়নি রিয়াল মাদ্রিদ।

Print Friendly, PDF & Email