বাঙালিনিউজ
২০১৬ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে বিনোদন সাংবাদিক তামিম হাসানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন ঢালিউড নায়িকা পরীমনি। চলতি বছর ২০১৯ সালের ১৪ এপ্রিল পারিবারিকভাবে বাগদানও সম্পন্ন হয়েছিল তাদের। এখন শোনা যাচ্ছে, তাদের প্রেম-বাগদান ভেঙে গেছে।

বাঙালিনিউজ
বিনোদনডেস্ক

চিত্রনায়িকা পরীমনি ও বিনোদন সাংবাদিক তামিম হাসানের বাগদান ভেঙে গেছে! এমন গুঞ্জণ চলছে ঢাকার বিনোদন জগতে। এ ব্যাপারে সাংবাদিক তামিম হাসান কোনও মন্তব্য করেননি। তবে চিত্রনায়িকা পরীমনি একটি জাতীয় দৈনিকে এক সাক্ষাৎকারে যা বলেছেন, তাতে তাদের দুই বছরের প্রেম ও বাগদানের পরিসমাপ্তিরই ইঙ্গিত পাওয়া যায়।

জানা গেছে, ইতোমধ্যে পরীমনির ফেসবুক পেজ থেকে বাগদানসহ তাদের দুজনের বিভিন্ন সময়ে তোলা অনেক ছবি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। অনেক দিন দুজনের নতুন কোনো ছবি ওঠেনি পরীমনির ফেসবুক পেজে। আর তাতেই সন্দেহ সৃষ্টি হয় বিনোদনপাড়ায়।

চলতি বছর ২০১৯ সালের গত ১৪ এপ্রিল পরীমনি ও তামিমের বাগদান হয়। দুই পরিবারের আত্মীয়-স্বজনরাও সেই অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন। বেশ জাঁকজমকপূর্ণ ছিল অনুষ্ঠানটি। বাগদান অনুষ্ঠানের পরদিন পরীমনি মিডিয়াকে বলেছিলেন, সামনে যেকোনো ১৪ এপ্রিল তারা বিয়ে করবেন। সেভাবেই এগিয়েছে সবকিছু। কিন্তু হঠাৎ তাদের দু’জনের দু’টি পথ দু’টি দিকে বেঁকে যাওয়ার খবর ঢালিউডের হাওয়ায় ভাসছে।

ঢালিউডে কান পাতলেই পরীমনি ও তামিমের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার সেই খবর কানে আসে। শোনা যায়, পরীমনি আর তামিমের প্রেম, বাগদান ভেঙে গেছে। তাদের ঘনিষ্ঠজনেরা বলছেন, প্রায় দেড় মাস হলো পরীমনি ও তামিমের সম্পর্ক শেষ হয়ে গেছে। এখন দু’জনে দু’পথে হাঁটছেন।

গতকাল ১১ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার দুপুরে, একটি জাতীয় দৈনিকে এক সাক্ষাৎকারে পরীমনি বলেছেন. সম্পর্ক তো সেটাই শেষ হয়, যেটা আসলেই হয়। পরীমনি তামিমের থেকে আলাদা হওয়া সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, একসঙ্গে তো ছিলামই না, আলাদা হওয়ার কী আছে! কাজের সঙ্গেও যোগাযোগ দু’বছর অফ রেখেছিলাম। তার চেয়ে নিশ্চয়ই এই প্রেমবিষয়ক ব্যাপারটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ না। অন্তত আমি সেটাই বিশ্বাস করি।

পরীমনি বাগদান পরবর্তী বিয়ে সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমি বাগদানের সময়ই আগামী কোনো এক বছরের ১৪ এপ্রিল বিয়ের দিন ঠিক করে রেখেছিলাম। তবে বাগদান না হলে কোনোভাবেই বুঝতে পারতাম না, আমি বিয়ের জন্য একদমই প্রস্তুত না। বরং গোষ্ঠী মেনটেইন করার যে বিশাল হিসাব আছে, সে বিষয়ে আমি ভীষণ অপরিপক্ব। তবে সময় কথা বলবে। এটুকুই বলতে চাই।

সম্পর্কে ফাটল কেন ধরল? এমন এক প্রশ্নের জবাবে পরীমনি বলেন, আমি এটা একা বলতে পারব না। তাহলে দু’জনকেই বলতে হবে। একতরফা বলা ঠিক হবে না। শুধু যেটুকু না বললেই নয়, সেটা হলো আমার কাজকে কেউ যদি অসম্মান করে, সেখানে আমি কখনো একচুল আপস করব না। কোনো লুকোচুরি ছাড়া ঢাকঢোল পিটিয়ে আমি প্রেম করেছি। কারণ এখানে সম্মানের জায়গা ছিল। একইভাবে আমার কাজও সম্মানের জায়গা। সেটাও নিজেদের বুঝতে পারা অনেক বেশি দরকার।

তাহলে পরীমনির কাজ কী তামিম অসম্মান করেছেন? এমন প্রশ্নের জবাব দিতে চাননি পরীমনি। তবে বলেছেন, যা বলেছি তাতে বুঝে নিতে হবে। তাদের দেখা হয় কিনা বা কথা হয় কিনা সে প্রশ্নেরও জবাব দেননি পরীমণি। বলেছেন, এত হিসাব দেওয়ার কিছু নাই। কারণ যা বলেছি, তাতেই সব পরিষ্কার আছে।

দুই পরিবারের মিটমাটের চেষ্টা আছে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে পরীমনি বলেন, এটা তো পারিবারিক সমস্যা নয়। সুতরাং পরিবারের বিষয়টি এখানে না আনাই ভালো। সম্পর্কের এই ভাঙনের বিষয়ে সরাসরি কোনো জবাব না দিলেও গণমাধ্যমে দেওয়া পরীমনির এই সাক্ষাৎকারে তাদের সম্পর্কের ফাটলের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে বিনোদন সাংবাদিক তামিমের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন ঢালিউড নায়িকা পরীমনি। ২০১৯ সালের ১৪ এপ্রিল বাগদান সম্পন্ন হয়েছিল তাদের। বিয়ে হওয়ার কথা ছিল পরের কোনও এক এপ্রিলে। কিন্তু সে এপ্রিল আর পরীমনি ও তামিম হাসানের জীবনে আসবে না বলে ধারণা করা হচ্ছে বিনোদনপাড়ায়।

Print Friendly, PDF & Email