বরগুনায় হরিণ শিকারের ফাঁদসহ ৫ মণ হরিণের মাংস জব্দ

বাঙালিনিউজ
বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনার পাথরঘাটায় পুলিশ ও বন বিভাগ যৌথ অভিযান চালিয়ে ৫ মণ হরিণের মাংস জব্দ করেছে। এ সময় একটি ট্রলার ও দুই বস্তা হরিণ শিকারের ফাঁদ জব্দ করা হয়। তবে এ সময় কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

আজ ১৮ মে ২০১৯ শনিবার ভোররাতে পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের পদ্মা এলাকার বনফুল গুচ্ছগ্রামের একটি খালের ভেতরে থাকা নামবিহীন একটি ইঞ্জিনচালিত ট্রলার থেকে এগুলো জব্দ করা হয়।

এ ব্যাপারে বন বিভাগের পদ্মা এলাকার বিট কর্মকর্তা বদিউজ্জামান সোহাগ জানান, গোপন সংবাদে আজ ১৮ মে শনিবার ভোররাতে পুলিশের সহযোগিতায় বনফুল গুচ্ছগ্রাম এলাকায় অভিযান চালায় বন বিভাগ। এ সময় গুচ্ছগ্রামের একটি খালের ভেতরে থাকা নামবিহীন একটি ইঞ্জিনচালিত ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে দুটি করে হরিণের চামড়া ও মাথা, ৫ মণ হরিণের মাংস, দুই বস্তা হরিণ শিকারের ফাঁদসহ একটি ট্রলার জব্দ করা হয়।

তিনি আরো জানান, জব্দ করা মাংসগুলো অন্তত ৮টি হরিণের বলে ধারণা করছে বন বিভাগ।

এ ঘটনায় নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানান, জব্দ হওয়া ট্রলারটির মালিক আব্দুর রহমান সিকদার। তবে তার ছেলে আল হানিফ সিকদার পাথরঘাটা কোস্টগার্ডের সোর্স হিসেবে পরিচিত। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আব্দুর রহমান সিকদার ও আল হানিফ সিকদার দীর্ঘদিন ধরে হরিণ শিকার করে মাংস বিক্রি করে আসছেন।

তবে এ বিষয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তাদের পাওয়া যায়নি। আর ফোন রিসিভ করেননি কোস্টগার্ডের পাথরঘাটা স্টেশনের কমান্ডার।

এ বিষয়ে পাথরঘাটা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হানিফ সিকদার জানান, জব্দ করা হরিণের মাংস বন বিভাগের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

Print Friendly, PDF & Email