বাঙালিনিউজ
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

ফেল করা সাবজেক্টে এ প্লাস পাইয়ে দেয়ার আশ্বাস দিয়ে একটি প্রতারক চক্র বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। জানা গেছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন গ্রুপে প্রচারণা চালিয়ে চক্রটি শিক্ষার্থীদের আকৃষ্ট করছে।

গত ১৭ জুলাই ২০১৯ বুধবার ঢাকার সূত্রাপুরে অভিযান চালিয়ে এ চক্রের দুইজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা হল- মুরাদ হাসান (১৯) ও পার্থ সরকার (১৯)। গতকাল ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার আদালতে তাদের হাজির করে রিমান্ড চাওয়া হলে একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিট সূত্র জানায়, বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ও ফেল সাবজেক্টে পাস করিয়ে এ প্লাস বা গোল্ডেন প্লাস পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে একটি শক্তিশালী প্রতারক চক্র ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপে সক্রিয়ভাবে কাজ করছে। চক্রটি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ভালো রেজাল্টের আশ্বাস দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়।

বিষয়টি জানতে পেরে সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিট তাদের ধরতে মাঠে নামে। অভিযানে বেশ কিছু প্রতারক চক্রের সন্ধান মিলেছে।

সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিট সহকারী পুলিশ কমিশনার সাইদ নাসিরুল্লাহ বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মুরাদ ও পার্থ জানায় ফেসবুকে বিভিন্ন গ্রুপের মাধ্যমে মিথ্যা পরিচয়ে এসএসসি, এইচএসসি ও দাখিল পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র সরবরাহ এবং ফেল সাবজেক্টে পাস করিয়ে এ প্লাস বা গোল্ডেন এ প্লাস পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিত। টাকা নেয়ার পর তারা যোগাযোগ বন্ধ করে দিত। অনেক সময় প্রার্থীদের বিভিন্নভাবে হুমকিও দেয়া হতো।

তিনি বলেন, এ ধরনের বেশ কিছু অভিযোগ আমাদের হাতে আসার পর বিষয়টি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হয়। সর্বশেষ বুধবার অভিযান চালিয়ে এ চক্রের দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়। আদালত সূত্র জানায়, আদালতে মুরাদ ও পার্থকে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম কনক বড়ুয়া আসামিদের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

Print Friendly, PDF & Email