বাঙালিনিউজ
ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নূরুল হক নূরকে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে স্বাগত জানিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।

বাঙালি নিউজ
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নূরকে বরণ করে নিয়েছে নিরঙ্কুশ বিজয়ী বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। নূরকে ের পক্ষ থেকে স্বাগত জানিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন

শোভনের আহ্বানে সাড়া দিয়ে অনির্দিষ্টকালের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মর্সূচি প্রত্যাহার করে নিয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের মোর্চা বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতা । আজ ১২ মার্চ ২০১৯ মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে বিজয়ী ও বিজিতের করমর্দন ও কোলাকুলির মধ্য দিয়ে দীর্ঘ প্রতীক্ষার নির্বাচন নিয়ে দুদিন ধরে চলা উত্তেজনার অবসান হলো বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা গেছে, ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের নিয়ে আজ বিকেল সোয়া ৪টার দিকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন টিএসসির মিলনায়তনে প্রবেশ করেন। এ সময় সেখানে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী ও অন্যান্য দলের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

টিএসসি মিলনায়তনের মঞ্চে নূরকে পাশে রেখে শোভন নিজের সংগঠন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, “আমি পারিনি তো কী হয়েছে, ভিপি তো হয়েছে। ভিপি তো কারও একার না, কোনো সংগঠনের না, সকল ছাত্রদের। এখন আমাদের সব চাওয়া-পাওয়া নুরুল হক পূরণ করবে। তাকেও দায়িত্বশীল হতে হবে, তোমাদেরকেও (ছাত্রলীগ) বার বার বলতেছি, তোমাদেরকেও সকলকে সহযোগিতা করতে হবে।”

ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, সবাইকে দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে, যেন স্বপ্নের বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ ঠিক থাকে।

এ সময় ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক ছাত্রলীগের সভাপতির সঙ্গে সহমত পোষণ করে বলেন, “আমরা চাই এ বিশ্ববিদ্যালিয়ের সকল ছাত্র সংগঠন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করবে। ছাত্র শিক্ষকদের সমন্বয়ে আমরা একটি উন্নতমানের শিক্ষাবান্ধব ক্যাম্পাস গড়ে তুলব। সেই লক্ষ্যে আমাদের পরস্পরের সহযোগিতা প্রয়োজন। শোভন ভাই বলেছেন, উনি সকল সহযোগিতা করবেন।”

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নতুন ভিপি নূর বলেন, ‘অনির্দিষ্টকালের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের যে ঘোষণা দিয়েছিলাম, সেটা প্রত্যাহার করে নিলাম। ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন থেকে আমরা সরে এলাম। তবে পুনর্নিবাচনের দাবি অব্যাহত থাকেব। আমরা শিক্ষার্থীদের রায় মেনে নিয়ে শিক্ষার্থীদের স্বার্থে এক সাথে কাজ করবো।’

ছাত্রলীগ বরণ করে নেওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক। টিএসসির মিলনায়তন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ১২ মার্চ। ছবি: মোছাব্বের হোসেন

ভিপি নুরুল হক বলেন, ‘ছাত্রলীগ আমাকে অভিনন্দন জানিয়েছে। আমি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে চাই। আমার ওপর ছাত্রলীগ যে হামলা করেছে, সেটার বিচারের দায়িত্ব আমি ছাত্রলীগ সভাপতির ওপর দিলাম। তিনি বড় ভাই হিসেবে এটা দেখবেন। আর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকও পুনর্নির্বাচন চেয়েছেন, সে জন্য আমিও পুনর্নির্বাচনের জন্য প্রশাসনকে বলব। যে নির্বাচন হয়েছে, তাতে শিক্ষার্থীদের ‘আশা পূরণ’ না হওয়ায় প্রশাসনকে পুরো বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার আহ্বান জানাচ্ছি।

এর আগে শোভনের অনুরোধে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে থেকে সরে যান ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। বেলা ৩টা ৪৫ মিনিটে ওই এলাকা থেকে ছাত্রলীগের কর্মীরা সরে যান। সেখানে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, ‘আমাদের সবাইকে নিয়েই চলতে হবে। ক্যাম্পাসের পরিবেশ ঠিক রাখতে সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে কাজ করতে চাই। আমি সবাইকে অনুরোধ করব এখান থেকে সরে যেতে।’

ছাত্রলীগের সভাপতি শোভন আরও বলেন, ‘ছাত্রলীগের মন বিশাল। আমরা বাংলাদেশকে ধারণ করি। আমরা আমাদের অভিভাবকদের সঙ্গে বেয়াদবি করতে পারি না। সবাইকে অনুরোধ করব এখান থেকে সরে যেতে।’

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ২৮ বছর পর গতকাল ১১ মার্চ সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসু ও হল সংসদগুলোর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তবে অনিয়মের অভিযোগ তুলে ভোট শেষ হওয়ার আগ মুহূর্তে অধিকাংশ প্যানেলের প্রার্থী বর্জনের ঘোষণা দেন। ছাত্রদল, বাম জোট, কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্ল্যাটফর্ম সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীদের দুটি প্যানেল ভোট বর্জনের এই ঘোষণা দিয়ে পুননির্বাচনের দাবি জানায়।

রাতে ভোটের ফল ঘোষণায় দেখা যায়, ডাকসুতে ভিপি ও সমাজসেবা সম্পাদক ছাড়া সবগুলো পদেই জয়ী হয়েছেন সরকার সমর্থক সংগঠন ছাত্রলীগের প্রার্থীরা। কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের মোর্চা বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্রার্থী নূরুল হক নূর প্রায় ১৯০০ ভোটের ব্যবধানে ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে পরাজিত করে নির্বাচিত হন।

কিন্তু ভিপি পদে পরাজয় মানতে না পেরে মঙ্গলবার সকাল থেকে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। অন্যদিকে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেওয়া প্যানেলগুলোর ডাকে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস-পরীক্ষা ছিল বন্ধ। সংগঠনগুলো আলাদা আলাদাভাবে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ সমাবেশ করে নতুন করে নির্বাচনের তফসিল দেওয়ার দাবি জানায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের পরদিন আজ মঙ্গলবার ক্যাম্পাসে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ আনন্দ মিছিল বের করে। মিছিলের পর রাজু ভাস্কর্যের সামনে এক সমাবেশে নূর ভিপি ও সমাজসেবা সম্পাদক ছাড়া ডাকসুর বাকি সব পদে নতুন করে ভোট দাবি করে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন।

অন্যদিকে ছাত্রলীগ সভাপতি শোভন ভিসির বাসভবনের সামনে গিয়ে কর্মীদের ভোটের ফল মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে অবস্থান কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নিতে বলেন। ছাত্রলীগ কর্মীরা এসময় ‘মানি না, মানি না’ বলে স্লোগান দিতে থাকলে শোভন বলেন, “তাইলে তোমরা আমাকেও মানো না।… অনেক সময় অনেক কিছুর কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিব্শে ভালো রাখার জন্য, দেশের ভালোর জন্য নিজেকে বলি দিতে হয়।… অনুরোধ, তোমরা হলে ফিরে যাও।”

বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কর্মসূচি প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে নূরসহ সব প্যানেলের নেতাকর্মীদের নিয়ে একসঙ্গে কাজ করতে চান তিনি। শোভনের অনুরোধে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে থাকা ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা সরে গেলে সংগঠনের সভাপতি দলবল নিয়ে যান টিএসসিতে। ভোট বর্জন করা প্যানেলগুলোর নেতাদের সঙ্গে তখন সেখানেই অবস্থান করছিলেন নূর।

শোভনকে মিলনায়তনে ঢুকতে দেখেই নূর মঞ্চে উঠে দাঁড়ান। শোভন এ সময় মঞ্চে উঠে নূরের সঙ্গে করমর্দন আর কোলাকুলি করেন। উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে শোভন বলেন, “ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে নূরুল হককে স্বাগত জানাতে এসেছি।”

ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা তুলে ধরে ছাত্রলীগের সভাপতি বলেন, “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীর প্রতি আহ্বান জানাই, শিক্ষার পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। নুরুল হককে মেনে নিয়ে যার যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করতে হবে।”

আর নূর বলেন, “শোভন ভাই আমার হলের বড় ভাই। আমরা একই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছি। আমি বিজয়ী হয়েছি, উনি আমাকে স্বাগত জানিয়েছেন, আমিও তাকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।” দুপুরে টিএসসিতে ছাত্রলীগের হামলার ঘটনার কথা মনে করিয়ে দিয়ে নূর বরেন, “আমি শোভন ভাইকে বলেছি। তিনি কি ব্যবস্থা নেন, সেটার জন্য অপেক্ষা করছি।”

Print Friendly, PDF & Email

Related posts