বাঙালিনিউজ
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় চুরির অপবাদে জুম্মন (৩৬) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে অপর কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী এলোপাতাড়ি পিটিয়ে হত্যা করেছেন।

বাঙালিনিউজ
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

আজ ১০ আগস্ট ২০১৯ শনিবার দুপুরে, নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় চুরির অপবাদে জুম্মন (৩৬) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে অপর কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী এলোপাতাড়ি পিটিয়ে হত্যা করেছেন। উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের পূর্ব দেলপাড়া এলাকায় এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি, অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও পুর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সুমন (৩২) ও রাসেল (২৮) নামের সেখানকার স্থানীয় দুই যুবককে পুলিশ আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডি আই ও টু) পরিদর্শক মো. সাজ্জাদ রোমন।

জানা গেছে, নিহত জুম্মন কুতুবপুর ইউনিয়নের দেলপাড়া রঘুনাথপুর এলাকার কাইয়ূমের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মাদক ও চুরিসহ অন্তত ৫টি মামলা রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পূর্ব দেলপাড়া এলাকার একটি বাড়ির সামনে জুম্মন দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় একই এলাকার কালুর ছেলে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী মারুফ সাবল (লোহার ধারালো অস্ত্র) দিয়ে জুম্মনকে এলোপাতাড়ি পিটাতে থাকেন। মারুফের সঙ্গে যোগ দিয়ে আরও ৫/৭ জন জুম্মনকে পেটাতে থাকেন।

এক পর্যায়ে স্থানীয় লোকজন জুম্মনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে, জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসলাম হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, জুম্মনকে যারা হত্যা করেছে তারা সবাই মাদক ব্যবসায়ী। এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের সবাইকে গ্রেফতারের চেষ্টা সহ হত্যা মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডি আই ও টু) পরিদর্শক মো. সাজ্জাদ রোমন মিডিয়াকে বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হলেও জড়িত সবাইকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। বিভিন্ন স্থানে পুলিশের বিশেষ অভিযান চলছে। তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।

Print Friendly, PDF & Email