বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
ক্রীড়াডেস্ক

আইসিসির ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ ২০১৯ ক্রিকেটযুদ্ধে, আজ ২৮ জুন শুক্রবার ৩৫তম ম্যাচে মুখোমুখি লড়ছে শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায়। ইংল্যান্ডের চেস্টার লে স্ট্রিটের রিভারসাইড গ্রাউন্ডে টস জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক।

ফলে শ্রীলঙ্কাকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় দক্ষিণ আফ্রিকা। আসরে শ্রীলঙ্কার এটি সপ্তম এবং দক্ষিণ আফ্রিকার অষ্টম ম্যাচ। বিশ্বকাপের শেষ চারের এই লড়াইয়ে, টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলে সাজঘরে ফিরেছেন লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। ম্যাচে কাগিসো রাবাদার করা ওভারের প্রথম বলেই ক্যাচ তুলে দিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। করুনারত্নে উইকেটে ছিলেন বড়জোর ১০ সেকেন্ড হবে!

শ্রীলঙ্কার বাঁচা-মরার ম্যাচে দলকে প্রথম বলেই বিপদে ফেলেছেন এ ওপেনার। আউট হওয়ার ধরনটাও ছিল ভীষণ অদ্ভুত। কাগিসো রাবাদার নিরীহ গতির ডেলিভারিটি যেন দেখতেই পাননি—লেগ স্টাম্পের বল খেলতে গিয়ে ক্যাচ দিয়েছেন দ্বিতীয় স্লিপে! ২০০৩ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের হান্নান সরকার, ২০১১ বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ের ব্রেন্ডন টেলর আর এবার মার্টিন গাপটিলের পর করুণারত্নে—বিশ্বকাপে প্রথম বলেই আউট হওয়া চার ওপেনার।

করুণারত্নের এই জঘন্য শুরুর পর ভালোই শুরু করেছিলেন পেরেরা-আভিষ্কা ফার্নান্দো। ওভারপ্রতি গড়ে ছয়ের ওপরেই রান তুলছিলেন দুজন। কিন্তু ১০ম ওভারে ডোয়াইন প্রিটোরিয়াসকে তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ দেন ফার্নান্দো (৩০)। মাঝে এক ওভার পর সেই প্রিটোরিয়াসের বলেই বোল্ড হন পেরেরা (৩০)। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৮.২ ওভার শেষে শ্রীলঙ্কার স্কোর ৩ উইকেটে ৮৬।

ব্যাট করছিলেন কুশল মেন্ডিস (৬) ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস (০)। সেমিফাইনালে ওঠার আশা টিকিয়ে রাখতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই শ্রীলঙ্কার। ৬ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৭ নম্বরে রয়েছে করুণারত্নের দল। অন্যদিকে, এবারের বিশ্বকাপ আসর থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিদায় আগেই নিশ্চিত হয়ে গেছে।

২০১৯ বিশ্বকাপে সেমিফাইনালের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে হলে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে জিততে হবে লঙ্কানদের। অন্যদিকে এবারের ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে দুর্ভাগা দল প্রোটিয়ারা এখন শুধু আনুষ্ঠানিকতা সারতে মাঠে নেমেছে। তারপরও ফাফ ডু প্লেসিস, হাশিম আমলা, নাথান ডি কক, কাগিসো রাবাদাদের দলটি ঘরে ফেরার আগে হারানো সম্মান পুনরুদ্ধার করতে মরিয়া।

শ্রীলঙ্কা একাদশ-

দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), কুশল পেরেরা, কুশল মেন্ডিস (উইকেটরক্ষক), অভিষেক ফার্নান্দো, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, থিসারা পেরেরা, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, নুয়ান প্রদীপ, ইসুরু উদানা, লাসিথ মালিঙ্গা এবং সুরঙ্গা লাকমল।

দক্ষিণ আফ্রিকা একাদশ-

কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), হাশিম আমলা, ফাফ ডু প্লেসিস (অধিনায়ক), এইডেন মার্করাম, ডেভিড মিলার, রসি ফন ডার ডুসেন, ক্রিস মরিস, ইমরান তাহির, লুঙ্গি এনগিডি, কাগিসো রাবাদা এবং আন্দিলে ফেলুকাওয়াও।

Print Friendly, PDF & Email