বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
বিনোদন প্রতিবেদক

আগামী ১ বছরের জন্য ের কমিটি পুনর্গঠন করে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিবকে চেয়ারম্যান এবং ের ভাইস চেয়ারম্যানকে সদস্যসচিব করে বোর্ডের বাকি সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

একই সঙ্গে ২০১৭ ও ২০১৮ সালের চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদানের জন্য জুরিবোর্ড গঠন করেছে সরকার। তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে বোর্ডের সভাপতি করা হয়েছে। তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন ও চলচ্চিত্র বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মিজান উল আলম এই তথ্য জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড এক বছরের জন্য যে কমিটি গঠন করেছে, সেখানে অন্যদের মধ্যে আছেন সুরকার ও সংগীত পরিচালক শেখ সাদী খান, চলচ্চিত্র ও নাট্যব্যক্তিত্ব ম হামিদ, সাংবাদিক শাবান মাহমুদ, চলচ্চিত্র পরিচালক শাহ আলম কিরণ, অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাস, প্রযোজক সমিতির সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি খোরশেদ আলম খসরু, অভিনেতা রানা হামিদ ও ড্যানি সিডাক।

সদস্য হিসেবে আরও আছেন আইন ও বিচার বিভাগের সচিব, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের প্রতিনিধি ও এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

অন্যদিকে, ২০১৭ ও ২০১৮ সালের চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদানের জন্য গঠন করেছে সরকার। এই দুই বছরে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবিগুলো মূল্যায়ন করে সেরা চলচ্চিত্র বাছাই করতেই বোর্ড গঠন করা হয়েছে। দেশের চলচ্চিত্রে সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার হচ্ছে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। প্রতি বছর মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রগুলো থেকে বাছাই করে সেরা চলচ্চিত্র-সহ বিভিন্ন বিভাগে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। এই বাছাই কার্যের দায়িত্বে থাকে দেশের তথ্য মন্ত্রণালয় ও চলচ্চিত্র অঙ্গনের গুণী ব্যক্তিদের সমন্বয়ে গঠিত

বাঙালিনিউজ

পদাধিকার বলে ১৩ সদস্যের জুরি বোর্ডের সভাপতি তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন ও চলচ্চিত্র) এবং সদস্য-সচিব বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান। এ ছাড়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (চলচ্চিত্র) ও বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক সদস্য হিসেবে আছেন।

২০১৮ সালের জুরি বোর্ডের বাকি সদস্যরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম এন্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান শফিউল আলম ভূঁইয়া, চলচ্চিত্র অভিনেতা ড. এনামুল হক, গীতিকার ও সংগীত পরিচালক হাসান মতিউর রহমান, অভিনেত্রী রওশন আরা রোজিনা, সংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর, দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র গ্রাহক সংস্থার যুগ্ম-মহাসচিব তপন আহমেদ।

২০১৭ সালের জুরি বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন- একুশে টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মনজুরুল আহসান বুলবুল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম এন্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান শফিউল আলম ভূঁইয়া, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী কোহিনূর আক্তার সুচন্দা, চলচ্চিত্র অভিনেতা আলমগীর, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি গুলজার, চিত্রগ্রাহক পংকজ পালিত ও সংগীত পরিচালক সুজেয় শ্যাম।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদানের জন্য বিভাগ হচ্ছে ২৮টি। সেগুলো হচ্ছে-আজীবন সম্মাননা, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা প্রধান চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী প্রধান চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পার্শ্ব চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পার্শ্ব চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা/অভিনেত্রী খল চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা/অভিনেত্রী কৌতুক চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ শিশু শিল্পী, শিশু শিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক, শ্রেষ্ঠ গায়ক, শ্রেষ্ঠ গায়িকা, শ্রেষ্ঠ গীতিকার, শ্রেষ্ঠ সুরকার, শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার, শ্রেষ্ঠ চিত্র নাট্যকার, শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা, শ্রেষ্ঠ সম্পাদক, শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক, শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জা এবং শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান।

Print Friendly, PDF & Email