বাঙালিনিউজ
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানায় মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন এবং অপর দুইজনের পাঁচ বছরের কারাদণ্ডসহ অর্থদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ ২৩ জুন ২০১৯ রোববার দুপুর ১২টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

জানা গেছে, এ মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি জিয়াউর রহমান জিয়া দৌলতপুর উপজেলার আল্লারদর্গা চামনাই গ্রামের মৃত শুকচাঁদ মন্ডলের ছেলে। মামলার অপর দুই আসামি হলেন- একই এলাকার মৃত যাদু মন্ডলের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক ও একই উপজেলার সোনাইকুন্ডি গ্রামের মৃত সিফাত মন্ডলের ছেলে সাজ্জাত মন্ডল।

এ ব্যাপারে আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুষ্টিয়ার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল দৌলতপুর উপজেলার আল্লারদর্গা চামনাই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে হেরোইনসহ জিয়াউর রহমান জিয়া ও সাজ্জাত মন্ডলকে আটক করে।

পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদে আটকরা স্বীকার করেন সীমান্ত থেকে আব্দুর রাজ্জাক ও সাজ্জাত হেরোইন এনে জিয়াকে দিয়ে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় করেন। এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ের পরিদর্শক তারেক মাহমুদ বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

কুষ্টিয়া জজ কোর্টের পিপি অ্যাড.অনুপ কুমার নন্দী জানান, আসামিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ও বাকি দুই আসামিকে ৫ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। রায়ের পর আসামিদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email