বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
আন্তর্জাতিকডেস্ক

কফির কাপে চুমুক দেওয়া আর বসে বসে পর্নোগ্রাফি দেখা। স্টারবাকসের আউটলেটে বসে এই দু’টি কাজ আর একসঙ্গে করা যাবে না, আমেরিকায়। নতুন বছরের শুরু থেকেই এই নির্দেশিকা কার্যকর হচ্ছে। আমেরিকার কফি প্রস্তুতকারক সংস্থা স্টারবাকস সম্প্রতি এই নির্দেশিকা জারি করেছে।

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে যে, স্টারবাকসের কোনও আউটলেটের ফ্রি ওয়াইফাই জোনে কেউ কোনও রকমের অ্যাডাল্ট কনটেন্ট সার্চ করতে পারবেন না। এই ধরনের সব ওয়েবসাইটই ব্লক করে দেবে স্টারবাকস।

বিশ্বের প্রায় প্রতিটা দেশেই স্টারবাকসের আউটলেট রয়েছে। তবে আপাতত ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে শুধু আমেরিকায় এই নির্দেশিকা বাস্তবায়ন করা হবে। স্টারবাকসের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যাতে গ্রাহকদের কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে না হয়, তার জন্যই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

কিন্তু স্টারবাকসের এই নির্দেশিকা ভালভাবে নেয়নি পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট ইউপর্ন। স্টারবাকসের ওপর ভীষণ চটেছে তারা। তবে স্টারবাকসের সঙ্গে কোনও বাগযুদ্ধে যায়নি তারা। বরং ইউপর্ন কর্তৃপক্ষও নিষিদ্ধ করে দিয়েছেন স্টারবাকসকে।

অমেরিকায় ইউপর্ন সংস্থার অফিসের ভিতরে স্টারবাকসের একটি আউটলেট রয়েছে। কর্মীদের সেই আউটলেট থেকে কোনও কিছু কিনতে নিষেধ করে দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। ইউপর্ন-ও ১ জানুয়ারি থেকেই এই নির্দেশিকা জারি করতে যাচ্ছে। স্টারবাকসের বদলে অন্য একটি সংস্থাকে বরাত দিতে যাচ্ছে তারা। বাইরে থেকেও কোনও স্টারবাকস প্রোডাক্ট অফিসের ভিতরে আনা যাবে না বলেও কর্মীদের মেল করে নির্দেশ দিয়েছেন ইউপর্ন কর্তৃপক্ষ।

প্রথমে স্টারবাকসের ‘চপেটাঘাত’! তারপরেই ইউপর্ন প্রত্যাঘাত! আর এই নিয়েই জমে উঠেছে কফি প্রস্তুতকারক সংস্থা স্টারবাকস আর পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট ইউপর্নের লড়াই। এখন দেখা যাক, পর্নোগ্রাফি আর কফির লড়াইয়ে কে হারে, আর কে জেতে। তবে এতে পর্ণোগ্রাফিতে আসক্তরা বেশ বেকায়দায় পড়ে যাচ্ছে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।

Print Friendly, PDF & Email