বাঙালিনিউজ
ইথিওপিয়ায় আজ ২৯ জুলাই ২০১৯ সোমবার এক দিনেই ২০ কোটির বেশি গাছ লাগানোর দাবি করেছে দেশটির সরকার। ছবি: বিবিসির সৌজন্যে

বাঙালিনিউজ
আন্তর্জাতিকডেস্ক

আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়া এক দিনেই ২০ কোটির বেশি গাছ লাগানো হয়েছে! ইথিওপিয়ার সরকারের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির নেতৃত্ব দিচ্ছেন। ইথিওপিয়া সরকারের দাবি, এক দিনে সবচেয়ে বেশি গাছ লাগানোর বিশ্ব রেকর্ড করেছে তারা।

তবে এক দিনে সবচেয়ে বেশি গাছ লাগানোর স্বীকৃত রেকর্ডটি বর্তমানে ভারতের দখলে। ২০১৬ সালে ৮ লাখ স্বেচ্ছাসেবকের সহযোগিতায় এক দিনে ৫ কোটি গাছ লাগিয়েছিল ভারত।

বিশ্বব্যাপী কমে যাচ্ছে সবুজ গাছপালার সংখ্যা। বাড়ছে বৈশ্বিক উষ্ণতা, গলে যাচ্ছে দুই মেরুর বরফ। এমন অবস্থায় সারা দেশে গাছ লাগানোর দারুণ ব্যতিক্রমী এক পদক্ষেপ নিয়েছে ইথিওপিয়া।

দেশটির প্রযুক্তি ও উদ্ভাবন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী টুইট করে বলেছেন, ইথিওপিয়ায় আজ ২৯ জুলাই ২০১৯ সোমবার কেবল এক দিনেই ২২ কোটি গাছ লাগানো হয়েছে। ৪০০ কোটি গাছ লাগানোর কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকার, এমনটিও জানিয়েছেন দেশটির এক সরকারি কর্মকর্তা।

খরা প্রবণ এই দেশটিতে সবুজ গাছের সংখ্যা দিন দিন কমছে। জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, একবিংশ শতাব্দীতে এসে ইথিওপিয়ার বনভূমির হার ৩৫ শতাংশ থেকে কমতে কমতে মাত্র ৪ শতাংশের একটু ওপরে এসে ঠেকেছে। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব থেকে বাঁচতে তাই এমন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে দেশটির সরকার।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সরকারি কর্মকর্তারা যেন বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারেন, সে কারণে বিভিন্ন সরকারি অফিসও বন্ধ রাখা হয়েছিল। বিবিসির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে,
কত গাছ লাগানো হলো, সেটি গুনে রাখার জন্য আলাদা লোক নিয়োগ দিয়েছে ইথিওপিয়ার সরকার। দেশটির অন্তত ১ হাজার ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হয়। সাধারণ জনগণকে গাছ লাগাতে উৎসাহ দিতে সরকারি গণমাধ্যমে প্রচারণামূলক ভিডিও প্রচার করছে ইথিওপিয়ার সরকার।

তবে প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদের সমালোচকদের দাবি, দেশটিতে চলমান নানা সংকটের ওপর থেকে জনগণের মনোযোগ সরিয়ে নিতেই এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকার। দেশটিতে চলমান জাতিগত বিদ্বেষের কারণে প্রায় ২৫ লাখ লোক দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছে বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

Print Friendly, PDF & Email