bangalinews

বাঙালিনিউজ
ক্রীড়া ডেস্ক

প্রিমিয়ার লিগে নবাগত উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সের কাছে ঘরের মাঠে হারতে হারতে রক্ষা পায় চেলসি। তবে এডেন হ্যাজার্ডের শেষ মুহূর্তের গোলে ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। ফলে বড় ধরণের লজ্জা থেকে মুখ বাঁচায় ‘ব্লুজ’রা ।

পুরো ম্যাচে চেলসিকে বাক্সবন্দী করে রেখেছিল উলভারহ্যাম্পটন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হারাতে পারেনি চেলসিকে। ৯২ মিনিটে ১৮ গজ দূর থেকে বাঁকানো গ্রাউন্ড শটে দুর্দান্ত এক গোল করে উলভারের জয়ের স্বপ্ন ভেঙে দেন চেলসির বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড এডেন হ্যাজার্ড।

গতকাল ১০ মার্চ ২০১৯ রোববার, স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে চেলসি ও উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সের ম্যাচ প্রথমার্ধে ছিল ম্যাড়মেড়ে। প্রথমার্ধ শেষও হয় গোলশূন্যভাবে। চেলসি প্রথমার্ধে মাত্র একবারই উলভারের গোলপোস্টে শট করতে পেরেছিল। গঞ্জালো হিগুয়াইন কঠিন অ্যাঙ্গেল থেকে চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু রুই প্যাট্রিসিও সহজ সেভ করে দলের বিপদ কাটান।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধের ৯ মিনিটে প্রথমবারের মতো চেলসির গোলপোস্টে শট নেয় উলভার। তাতেই গোল পেয়ে যায় তারা। দারুণ এক কাউন্টার অ্যাটাক থেকে রাউল হিমেনেজ কেপার সঙ্গে ওয়ান অন ওয়ানে অবস্থা থেকে গোল করে উলভারকে এগিয়ে দেন। পুরো ম্যাচে উলভার আর মাত্র একবারই চেলসির গোলপোস্টে শট নিতে পেরেছিল।

আক্রমণে জোরালো না হলেও, উলভারের রক্ষণভাগ ছিল গোছালো। চেলসিকে বড় কোনো সুযোগ দেয়নি তারা। বল পজেশনে এগিয়ে থেকেও ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে চেলসি তার প্রতিপক্ষ উলভারের ডিবক্সে ঢোকার তেমন সুযোগ পায়নি। তবে গোল হজমের পর কিছুটা হুশ ফিরে চেলসির। আক্রমণেও যায়। পেদ্রোর শট সহজেই ঠেকিয়ে দেন রুই প্যাট্রিসিও, পরে হিগুয়াইনও একটি হাফ চান্স আর গোলে পরিণত করতে পারেননি।

সবকিছু ঠিকঠাক, উলভার যখন জয়ের ক্ষণ গুনছিল, তখনই বিপত্তিটা বাঁধিয়ে বসেন চেলসির হ্যাজার্ড। মৌসুমের ১৭তম গোলে ঘরের মাঠে দলকে হার থেকে রক্ষা করেন তিনি। শেষ মুহূর্তে যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে হ্যাজার্ডের গোলে সমতায় ফেরে চেলসি। ফলে ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। আর এতে চেলসিরও মুখরক্ষা হয়।

চেলসি ২৯ ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে। আর উলভারহ্যাম্পটন ৩০ ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে চেলসির পরেই অবস্থান করছে।

Print Friendly, PDF & Email