বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
নিজস্ব প্রতিবেদক

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রথম ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। এখন চলছে গণনা। আজ ১০ মার্চ ২০১৯ রোববার সকাল ৮টায় ৭৮ উপজেলায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। শেষ হয় বিকেল ৪টায়। কারচুপি ও বিশৃঙ্খলার অভিযোগে হবিগঞ্জ, কুড়িগ্রাম ও সিরাজগঞ্জে ১০টি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া অনিয়মের অভিযোগে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

ইসি সূত্র জানায়, ভোটগ্রহণ শেষ হলেও কতগুলো কেন্দ্র বন্ধ করা হয়েছে তা এখনও হিসাব করা হয়নি। কেন্দ্রীয়ভাবে সে হিসাব সমন্বয়ের কাজ চলছে।

ইতিমধ্যে প্রথম ধাপে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মোট ২৮ প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১৫, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন।

ইসি সূত্র জানায়, প্রথম ধাপে ৮৭ উপজেলার তফসিল ঘোষণা করে ইসি। পরবর্তীতে আদালত ও নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ৬টি উপজেলার নির্বাচন স্থগিত এবং বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৩টি উপজেলায় সব পদে নির্বাচিত হওয়ায় ৭৮টি উপজেলায় প্রথম ধাপে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এর মধ্যে আদালতের নির্দেশে বন্ধ হওয়া উপজেলাগুলো হলো- রাজশাহী বিভাগের পবা, কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি এবং সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া। জামালপুরের মেলান্দহ ও মাদারগঞ্জ উপজেলা এবং নাটোরের সদর উপজেলায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সবাই নির্বাচিত হওয়ায় ভোটগ্রহণ হয়নি।

অন্যদিকে ন্যায়সঙ্গত, নিরপেক্ষ ও আইন অনুযায়ী নির্বাচন করা সম্ভব নয় বলে নেত্রকোনার পূর্বধলা, লালমনিরহাটের আদিতমারী এবং সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদে ভোট স্থগিত করেছে ইসি। এছাড়া নীলফামারী সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ভোট স্থগিত করা হয়েছে। তবে ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইসির তথ্য মতে, ৭৮ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা এক কোটি ৪২ লাখ ৪৮ হাজার ৮৫০ জন। ৫ হাজার ৮শ’ ৪৭টি কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ১ কোটি ৪২ লাখ ৪৮ হাজার ৮শ’ ৫০ জন। প্রথম ধাপে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে চেয়ারম্যান ২০৭, ভাইস চেয়ারম্যান ৩৮৬ এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ২৪৯ জন। ভোট উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট উপজেলায় আজ সাধারণ ছুটি ছিল।

Print Friendly, PDF & Email

Related posts