বাঙালিনিউজ
‘ইত্যাদি’ অনুষ্ঠানে গান গেয়েছেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা

বাঙালিনিউজ
বিনোদন প্রতিবেদক

আগামী ২৯ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার রাত আটটার বাংলা সংবাদের পর বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচারিত হবে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’। জনপ্রিয় উপস্থাপক হানিফ সংকেত অনুষ্ঠানটি গ্রন্থনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন। শিল্প নির্দেশনা দিয়েছেন মুকিমুল আনোয়ার মুকিম।

বাংলাদেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’তে এবার গান গেয়েছেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। দেশের প্রখ্যাত এই রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী গেয়েছেন দেশের গান। গানটির স্থায়ী অংশটুকু হলো ‘আমি কথা বলি দেশের মাটির জন্যে, আমার কণ্ঠে গান আসে এই দেশের রূপ লাবণ্যে।’ গানটি লিখেছেন মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন ফরিদ আহমেদ।

এবার ‘ইত্যাদি’ ধারণ করা হয়েছে পটুয়াখালী জেলার কুয়াকাটায়। পেছনে সমুদ্র আর সেটের দুই পাশে ছিল মাছ ধরার অর্ধশতাধিক নৌকা—কুয়াকাটার ঐতিহ্যের সঙ্গে মিলিয়ে নির্মাণ করা হয় মঞ্চ। শুধু রাতে নয়, এবার অনুষ্ঠানটি দিনেও ধারণ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফাগুন অডিও ভিশন মিডিয়াকে জানায়, রাতের আলোকিত মঞ্চে ‘ইত্যাদি’ ধারণ করা হলে কুয়াকাটার প্রাকৃতিক রূপ আর সাগরের ফেনিল জলের ঢেউ দেখানো সম্ভব নয়। তাই গোধূলি লগ্নে ‘ইত্যাদি’র ধারণ শুরু করা হয়। আশপাশে তেমন কোনো জনবসতি না থাকলেও ধারণ শুরুর আগেই অনুষ্ঠানস্থল কানায় কানায় ভরে যায়।


‘ইত্যাদি’র দৃশ্যে হানিফ সংকেত

এবার রয়েছে পটুয়াখালীর ইতিহাস, ঐতিহ্য আর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত-দর্শনীয় আর পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় স্থানগুলোর ওপর প্রতিবেদন। আরেকটি প্রতিবেদনে রয়েছে পটুয়াখালীর সদর উপজেলার নন্দীপাড়ার আবদুর রাজ্জাক বিশ্বাসের সাপের খামার নিয়ে। পটুয়াখালী জেলার বাউফলের ধুলিয়া গ্রামের মোতালেবের গ্রাম উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে রয়েছে প্রতিবেদন।

এছাড়া সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া ও তাড়াশ উপজেলার সীমান্তবর্তী গ্রাম এবং যশোরের অভয়নগর উপজেলার একটি গ্রামে কৃত্রিম ও প্রাকৃতিক উপায়ে মধু সংগ্রহ, কুয়াকাটার নবীনপুর গ্রামের ‘সাগরবন্ধু’ মন্নান মাঝির নিঃস্বার্থ মানবিক কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রতিবেদন রয়েছে। আর দক্ষিণ আফ্রিকার রাজধানী কেপটাউনে অবস্থিত পৃথিবীর প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য টেবিল মাউন্টেন নিয়ে রয়েছে বিদেশি প্রতিবেদন।

পটুয়াখালীকে নিয়ে লেখা গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেন স্থানীয় নৃত্যশিল্পীরা
পটুয়াখালীকে নিয়ে লেখা গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেন স্থানীয় নৃত্যশিল্পীরা। এই গানটির কথা লিখেছেন মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান। সুর করেছেন হানিফ সংকেত, সংগীতায়োজন করেছেন মেহেদী। কণ্ঠ দিয়েছেন প্রতীক হাসান ও অনিকা।

অনুষ্ঠানে আঞ্চলিক ভাষায় কুয়াকাটার বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান নিয়ে লেখা একটি নাট্যাংশে অভিনয় করেন দর্শকেরা। নিয়মিত পর্বসহ রয়েছে ভেজালের বেড়াজাল, সংগীতের সঙিন অবস্থা, তথ্য ব্যবসার ব্যাপকতা, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কুপ্রভাব, তোষামোদে খোশ আমোদে, রান্নাবান্না, কান্নাসহ বিভিন্ন বিষয়ের ওপর নাট্যাংশ।

Print Friendly, PDF & Email