বাঙালিনিউজ
রেকর্ড পাঁচবার গোল্ডেন বুট নিলেন মেসি

বাঙালিনিউজ
ক্রীড়াডেস্ক

বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবল ক্লাব স্পেনের বার্সেলোনা দলের আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি গতকাল ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ মঙ্গলবার গত মৌসুমে ইউরোপে সর্বোচ্চ গোল দেওয়ার পুরষ্কার হাতে পেয়েছেন। এবার নিয়ে রেকর্ড পাঁচবার এই অনন্য পুরষ্কার জিতলেন লিওনেল মেসি। এতোদিন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে সমান চারটি গোল্ডেন বুট ছিল মেসির দখলে।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে ছাড়িয়ে সর্বোচ্চ পাঁচবার ইউরোপের লিগগুলোয় সবচেয়ে বেশি গোল করার কীর্তি গড়েন মেসি। চারটি গোল্ডেন শুয়ের মালিক রোনালদো একটি জিতেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে, অন্য তিনটি এসেছে রিয়ালের হয়ে। মেসির পাঁচটিই বার্সেলোনার হয়ে জেতা।

২০১৭-১৮ মৌসুম শেষেই মেসি নিশ্চিত করেছিলেন তাঁর এ মর্যাদাকর পুরষ্কার। গতকাল পেয়েছেন আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি। গত মৌসুমে ৩৪টি গোল দিয়েছিলেন মেসি। পেছনে ফেলেছেন লিভারপুলের মোহাম্মদ সালাহ ও টটেনহ্যাম হটস্পার্সের হ্যারি কেইনকে। গত মৌসুমে ৩২টি গোল দিয়েছিলেন সালাহ। মেসির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী রোনালদো দিয়েছেন ২৬টি গোল।

গতকাল ১৮ ডিসেম্বর মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু বুঝে পাওয়ার পর নিজের সাফল্য তরুণ বয়সের প্রত্যাশাকে ছাড়িয়ে গেছে বলে জানান মেসি। তিনি বলেন, যখন শুরু করেছিলাম তখন আমি এটা প্রত্যাশা করিনি। পেশাদার ফুটবলার হিসেবে আমার স্বপ্ন ছিল ফুটবলে সফল হওয়া। আমি কখনোই এটা কল্পনা করিনি।

মেসি বলেন, আমি আমার চেষ্টা, কাজ ও সর্বোপরি সতীর্থদের সঙ্গ উপভোগ করি। আমি বিশ্বের সেরা দলে আছি, আমার সতীর্থরা তাদের নিজ নিজ পজিশনে বিশ্বসেরা। আর সেটা এই সব পুরস্কার পেতে সবকিছুকে সহজ করে তুলেছে।

তিনি বলেন, ঈশ্বরকে ধন্যবাদ যে আমি শারীরিক ও মানসিকভাবে খুব ভালো আছি। একেকটা বছর কাটছে এবং আমি নিজের যত্ন নিতে চেষ্টা করছি। এটা আমি আমার পুরো ক্যারিয়ার জুড়েই করেছি।

এর আগে ২০০৯-১০ মৌসুমে ৩৪ গোল, ২০১১-১২ মৌসুমে ৫০ গোল, ২০১২-১৩ মৌসুমে ৪৬ গোল এবং ২০১৬-১৭ মৌসুমে ৩৭ গোল দিয়ে এই পুরষ্কার জিতেছিলেন মেসি। চলতি মৌসুমেও সেরার তালিকায় শীর্ষেই আছেন মেসি। এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১৪টি গোল দিয়েছেন বার্সার হয়ে। ৩১ বছর বয়সী মেসি বার্সেলোনার সর্বোচ্চ গোলদাতা। এখন পর্যন্ত ৬৫৫টি ম্যাচ খেলে দিয়েছেন ৬৫৫টি গোল।

ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের প্রায় সব ব্যক্তিগত পুরস্কারই হাতে তুলেছেন লিওনেল মেসি। বার্সেলোনার হয়ে নিজের সাফল্যকে কল্পনার অতীত বলে মনে করেন এই আর্জেন্টাইন তারকা।
২০০৬ সালের পর এ বছর প্রথমবারের মতো ব্যালন ডি’অরের সেরা তিনে মেসির না থাকা বিস্মিত করেছে অনেকেই।

চলতি মৌসুমে এ পর্যন্ত লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা গত মৌসুমেও ছিলেন দারুণ ছন্দে। বার্সেলোনার কোপা দেল রে ও লা লিগা জয়ে বড় অবদান রাখেন তিনি। ৩৬ ম্যাচে ৩৪ গোল করে লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে পিচিচি ট্রফি ও ইউরোপের লিগগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ গোলের পুরস্কার ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু দুটোই জেতেন ৩১ বছর বয়সী এই তারকা।

Print Friendly, PDF & Email