বাঙালিনিউজ

বাঙালিনিউজ
জাতীয়ডেস্ক

রাজধানী ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় দুটি পৃথক স্থান থেকে দুই নারী পোশাক শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাদের নাম রুবি আক্তার (৩০) ও জান্নাতি (১৯)। পুলিশ জানায়, গতকাল ২১ জুন ২০১৯ শুক্রবার রাতে আশুলিয়ার শিমুলিয়া ইউনিয়নের জিরানী কোনাপাড়া চিরিঙ্গা পুকুরপাড় এলাকা থেকে রুবি আক্তারের ও ইয়ারপুর ইউনিয়নের ইউসুফ মার্কেট এলাকা থেকে জান্নাতির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

জানা গেছে, রুবি আক্তার ধামরাই উপজেলার চন্ডিশ্বর গ্রামের সোনা মিয়ার মেয়ে। তিনি স্বামী-সন্তানের সঙ্গে আশুলিয়ার কোনাপাড়া চিরিঙ্গা পুকুর পাড় এলাকায় ভাড়া থেকে ডিইপিজেড পুরাতন জোনের লেনিফ্যাশনে চাকরি করতেন। জান্নাতি রংপুর জেলার বদরগঞ্জ থানার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, সন্ধ্যায় রুবির ছেলে মাদ্রাসা থেকে ফিরে বাসায় এসে তার মাকে ডাকাডাকি করে। কিন্তু কোনো সাড়া না পেয়ে ঘরের দরজায় ধাক্কা দিয়ে দেখে ভেতর থেকে দরজা লাগানো। পরে সে জানালা দিয়ে দেখে, তার মা ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছে।

এসময় তার চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ গণমাধ্যমকে বলেন, স্বজনদের কোনো অভিযোগ না থাকায় রুবি আক্তারের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

অপরদিকে জান্নাতির মরদেহ উদ্ধারের খবরে জানা যায়, জান্নাতির বোন জামেলা তার বাসা পরিবর্তনে সহযোগিতা করতে বললে জান্নাতি তা না করে নিজ বাসায় চলে যায়। কিছুক্ষণ পরে জান্নাতির স্বামী ফোন করে জামেলাকে জানায়, জান্নাতি আত্মহত্যার চেষ্টা করছে। এরপর জামেলা তার বাসায় গিয়ে দেখেন জান্নাতি বিছানায় পড়ে আছে। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ মিডিয়াকে বলেন, জান্নাতির মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তার মরদেহ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

Print Friendly, PDF & Email